গোলাম মাওলা রনিকে প্রতিহতের ঘোষণা ‘পটুয়াখালী-৩’ বিএনপির

 

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনের প্রার্থী হয়েছেন আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত সাংসদ গোলাম মাওলা রনি। কিন্তু নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর পর থেকে স্থানীয় বিএনপির প্রতিরোধের মুখে পড়েছেন তিনি। এমনকি রনিকে পটুয়াখালী-৩ আসনে যেকোন মূল্যে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছে স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মী।

গলাচিপা ও দশমিনা উপজেলা নিয়ে পটুয়াখালী-৩ আসনটি আওয়ামী লীগের দূর্গ হিসেবে পরিচিত। ২০০৮ সালের নির্বাচনে হঠাৎ করেই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে যান গোলাম মাওলা রনি। হয়ে যান সংসদ সদস্য। এরপর ব্যক্তি আক্রোশ থেকে স্থানীয় বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে মেতে ওঠেন তিনি। চলে হামলা, মামলা আর নির্যাতন। তার নানা প্রকার দৌরাত্ম্যের কারণেই পরবর্তীতে তিনি আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারও হন।

স্থানীয়দের বরাতে জানা যায়, ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে গোলাম মাওলা রনি ব্যক্তি আক্রোশের বশবর্তী হয়ে দল-মত নির্বিশেষে অত্যাচার-নির্যাতন-নিপীড়ন করেন। তার অত্যাচারে গলাচিপা ও দশমিনা জনপদ অতিষ্ঠ ছিলো। ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে তিনি মসজিদের ইমামকেও প্রহার করেন।

স্থানীয় বিএনপি নেতারা বলছেন, ক্ষমতায় থাকতে রনির সহযোগীদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন তাদের অনেকে। তাই এখন তার পক্ষে কাজ করতে নেতাকর্মীরা অনাগ্রহী।

এ প্রসঙ্গে গলাচিপা উপজেলা বিএনপি সহ-সভাপতি ফজলুর রহমান সাজু বলেন, ‘গলাচিপা ও দশমিনা নির্বাচনী এলাকায় তিনি যখন সংসদ সদস্য ছিলেন, সেসময় অন্যায়ভাবে আমাদের বহু নেতাকর্মীকে অত্যাচার করেছে। তার কর্মীদের দ্বারা বাড়িঘর লুটপাটেরও শিকার হয়েছে বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মী। সুতরাং তিনি খোলশ পরিবর্তন করলেই তাকে আমরা সমর্থন দিতে পারি না।

এদিকে গলাচিপা-দশমিনা বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতাকর্মীরা বলছেন, তারা চাইলেও মাঠ পর্যায়ের বিএনপি নেতা কর্মীরা রনিকে চায় না। এমন বাস্তবতায় কেন্দ্রীয় বিএনপি চাইলেও গোলাম মাওলা রনিকে সমর্থন করা সম্ভব হচ্ছে না।