জামায়াতকে নিয়ে খেলছে বিএনপি: ছুড়ে ফেলবে যেকোনো মুহূর্তে

 

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে নিয়ে খেলা শুরু হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। যদিও দুদুর এমন অভিযোগে একমত নন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, ২০ দলীয় জোটের প্রতারণায় জামায়াতের বিলুপ্তির আশঙ্কা তৈরি হওয়ায় এমন কৌশল অবলম্বন করছে বিএনপি নেতারা।

বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়ের পর জামায়াতকে নিয়ে দেশি ও আন্তর্জাতিক চাপে পড়েছে বিএনপি। বিভিন্ন পর্যায় থেকে সাফ জানানো হয়েছে যে, জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ না করলে বিএনপিকে কোনোরকম রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা করবে না বলেও জানিয়ে দিয়েছে বিভিন্ন সংস্থা ও রাষ্ট্র। তাই নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে এবং অর্থনৈতিক সহায়তা ঠিক রাখতে বিএনপি কৌশলে জামায়াতকে নিয়ে খেলছে। পাশাপাশি সাংগঠনিকভাবে দুর্বল জামায়াতকে রাজনীতির মারপ্যাঁচে ফেলে সুবিধা আদায় করতে এখন জামায়াত বধের দায় সরকারের ঘাড়ে চাপাতে চায় বিএনপি।

বিষয়টি বিএনপির নতুন রাজনীতির অংশ হিসেবে দাবি করে একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, জামায়াতের পাপের বোঝা টানতে টানতে বিএনপি এখন ক্লান্ত। এরমধ্যে আবার নির্বাচনে পরাজয়, অর্থ-সহায়তা বন্ধের হুমকি, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়ে বিএনপি এখন জামায়াতকে ত্যাগ করার কৌশল খুঁজছে। বিএনপি বুঝতে পেরেছে যে, জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে চললে বদনাম ছাড়া আর কিছুই পাওয়া যাবে না। তাই কৌশলে লন্ডন থেকে জামায়াত নেতাকে অর্থ ও পদের প্রলোভন দেখিয়ে জামায়াত ভাঙ্গার চেষ্টা করছে বিএনপি। জামায়াত অন্ধের মতো বিএনপিকে ভরসা করে নিশ্চিহ্ন হওয়ার পথে পা বাড়িয়েছে। জামায়াতকে যেকোনো মুহূর্তে ছুড়ে ফেলবে বিএনপি।

বিষয়টি ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেন, বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে বিএনপি এককভাবে রাজপথে ফিরতে চায়। আমরা অনেক আগে থেকেই বলেছি যে- প্রয়োজনে জামায়াত কেন, যে কাউকেই ত্যাগ করবে বিএনপি। আমরা রাজনীতি করতে এসেছি, কোন দলকে পুনর্বাসনের দায়িত্ব নেইনি।

তিনি আরো বলেন, নিজেদের ভুলের কারণে জামায়াতের রাজনীতিতে ছেদ পড়েছে। এখানে বিএনপির কোন দোষ নেই। জামায়াতের ভাঙনে বিএনপির কোন হাত নেই। রুটির ভাগ নিয়ে বানরদের মধ্যে ঝগড়া লেগেছে। তা নিয়ে বিএনপির মাথাব্যথা নেই। বিএনপি অতীতের সব ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে নতুন করে রাজনীতিতে ফিরতে চায়