বহিষ্কৃত হচ্ছেন বিএনপির আরও ২৭ নেতা, সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ৪৪

 

নিউজ ডেস্ক: বহিষ্কারের হিড়িক পড়েছে বিএনপির তৃণমূলে। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে দুই দিনে ১৭ নেতাকে বহিষ্কারের পর এবার বহিষ্কার হচ্ছেন আরও ২৭ নেতা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপিতে যে সংখ্যক নেতাদের বহিষ্কার করা হচ্ছে তা বিএনপির সাংগঠনিক রাজনীতিকে ধুলোয় মিশিয়ে দিতে পারে।

সূত্র বলছে, গত ২৬ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি পাবনা, সুনামগঞ্জ, পঞ্চগড় ও পিরোজপুরের মোট ১৭ নেতাকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় বিএনপি। এরই ধারাবাহিকতায় ২ মার্চ বগুড়া জেলা বিএনপির জরুরি সভায় ২৭ নেতাকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। এরইমধ্যে ওই ২৭ জনের বিরুদ্ধে বহিষ্কারের সুপারিশ কেন্দ্রীয় বিএনপির কাছে তালিকা আকারে প্রেরণ করা হয়েছে।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে যারা বহিষ্কার হচ্ছেন তারা হলেন- সারিয়াকান্দির মাসুদুর রহমান হিরু মণ্ডল (উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি), শিবগঞ্জ উপজেলার বিউটি বেগম (জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক), নন্দীগ্রামের এস এম আবদুর রাফি পান্না (জেলা বিএনপির সহসভাপতি), ধুনটের আলীমুদ্দিন হারুন মণ্ডল (পৌর বিএনপির সভাপতি) ও আকতার আলম (উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক), শাজাহানপুরের আবুল বাশার (উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক) এবং গাবতলীর একিউএম ডিসেন্ট আহম্মেদ (উপজেলা বিএনপির সদস্য)। বহিষ্কারের সুপারিশ হওয়া অন্য ব্যক্তিরা বিভিন্ন উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন। তাদের প্রত্যেকেই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় বহিষ্কৃত হচ্ছেন।

বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে উপজেলা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলকারী ২৭ নেতাকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে ৩ মার্চ কেন্দ্রীয় বিএনপির নিকট তালিকা পাঠানো হয়েছে।