দলের তথ্য ফাঁস নিয়ে ক্ষুব্ধ মির্জা ফখরুল, সন্দেহের তীর স্থায়ী কমিটির দিকে!

 

নিউজ ডেস্ক : বিএনপির অভ্যন্তরীণ তথ্য ফাঁস, ভিন্ন দলের সঙ্গে আঁতাতের ঘটনাগুলো নতুন নয়। দলের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফাঁস করে দেয়ায় এবার স্থায়ী কমিটির সদস্যদের উপর ক্ষোভ দেখিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কোন স্বার্থে এবং কাদের মনোরঞ্জন করতে দলের নেতা-কর্মীরা তথ্য ফাঁস করছেন, সেটির কোন কুল-কিনারা খুঁজে পাচ্ছেন না মির্জা ফখরুল।

তথ্য সূত্র বলছে, শনিবার (২২ জুন) গুলশানে দলটির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে মির্জা ফখরুল এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বৈঠক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ জুন স্থায়ী কমিটির বৈঠকে কার সিদ্ধান্তে দলীয় সংসদ সদস্যরা শপথ নিয়েছেন, এ বিষয়ে নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের বাকবিতণ্ডা হয়। পরে ১৭ তারিখ বিভিন্ন দৈনিকে তাদের কথোপকথন হুবহু ছাপা হয়। শনিবার স্থায়ী কমিটির মুলতবি বৈঠক শুরু হলে একপর্যায়ে এ বিষয়ে কথা তোলেন মির্জা ফখরুল। তিনি প্রশ্ন করেন, আমাদের ‘ক্লোজড ডোর’ বৈঠকের তথ্য কীভাবে প্রচার হলো? যারা এই ষড়যন্ত্রে জড়িত তাদের চিহ্নিত করতে হবে। দলের গোপনীয়তা রক্ষার্থে প্রয়োজনে এসব ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করারও হুশিয়ারি দেন মির্জা ফখরুল।

এদিকে বিএনপির তথ্য পাচারের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে দলটির স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামের বৈঠকে দলের পরবর্তী কার্যক্রম, পদক্ষেপ নিয়ে নানা পরিকল্পনা হয়। দলের স্বার্থে যা প্রকাশ করা নিষেধ। যদি তথ্য ফাঁসই হয়ে যায় তাহলে ক্লোজড ডোর বৈঠক করে লাভ কী?

তিনি আরো বলেন, কেউ হয়তো ব্যক্তি ক্ষোভ মেটাতে এসব কথা মিডিয়ায় প্রচার করেছেন। তখন অন্য নেতারাও এ নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন। যার কারণে বিএনপির সকল পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। দল ঘুরে দাঁড়াতে পারে না। এধরণের কার্যক্রম দলের জন্য অশনি সংকেতের মতো। অচিরেই এসব ষড়যন্ত্রকারীদের রুখে দিতে হবে।