‘প্রধানমন্ত্রী সব শুনে বললেন, করোনার ঘোষণা দাও, অনুষ্ঠান পরে’

 

 

‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনায় যা আছে সেভাবেই ঘোষণা করো। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান পরেও করা যাবে। দেশের মানুষের কাছে তথ্য গোপন করতে পারব না। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাও। আমি তোমাদের সাথে আছি।’

রোববার (৮ মার্চ) দেশে প্রথমবারের মতো তিনজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ তথ্য জানার পর এভাবে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত ও নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেকের নেতৃত্বে রোববার সকালে স্বাস্থ্য বিভাগের শীর্ষ কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী সম্পর্কে অবহিত করতে গেলে তিনি একথা বলেন। সাক্ষাৎকারকালে কেউ কেউ কয়েকটা দিন করোনাভাইরাস আক্রান্ত তথ্য গোপন করে আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের পর ঘোষণা দেয়ার প্রস্তাব করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা সরাসরি নাকচ করে দেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎকারীদের একজন জাগো নিউজের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, আগামী ১৭ মার্চের অনুষ্ঠানের চেয়ে দেশের মানুষ প্রধানমন্ত্রীর কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

ওই কর্মকর্তা জানান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) কর্মকর্তারা শনিবার (৭ মার্চ) রাতেই ল্যাবরেটরি পরীক্ষার ফলাফলে ইতালি ফেরত প্রবাসী দুজনসহ মোট তিনজনের করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত হন।

এ খবর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য সচিব (সেবা বিভাগ) আসাদুল ইসলাম ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদকে জানান, আইইডিসিআর পরিচালক ডা. মীরজাদি সাবরিনা ফ্লোরা।