‘যারা চিকিৎসা দিচ্ছেন না, ভবিষ্যতে ডাক্তারি করতে পারবেন কিনা সন্দেহ’

 

‘যারা চিকিৎসা দিচ্ছেন না, ভবিষ্যতে ডাক্তারি করতে পারবেন কিনা সন্দেহ’

দেশের এই দুঃসময়ে যারা চিকিৎসা দিচ্ছেন না, পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা ভবিষ্যতে ডাক্তারি করতে পারবেন কিনা সন্দেহ আছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, যারা পালিয়ে বেড়িয়েছেন এবং সেবা দেননি তাদের আর প্রয়োজন নেই। প্রয়োজনে আমি বাইরে থেকে ডাক্তার-নার্স নিয়ে আসব। আর এ দুঃসময়ে যারা চিকিৎসা দেন নি তারা ভবিষ্যতে ডাক্তারি করতে পারবেন কিনা সন্দেহ আছে।
মঙ্গলবার (০৭ এপ্রিল) সকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চট্টগ্রাম বিভাগের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।
তিনি বলেন, যারা কাজ করেননি, নিজেদের সুরক্ষার জন্য পালিয়ে বেড়িয়েছেন। রোগীরা দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়িয়েছে কিন্তু চিকিৎসা পান নি সেসব চিকিৎসকদের জন্য কোনো প্রণোদনা নয়। কেউ যদি মনে করেন আমাদের প্রণোদনা দিলে আসব, তাহলে তাদেরকে অবজারভেশনে রাখব, এই তিন মাস কীভাবে কাজ করছেন দেখব। যদি আসলেই মানুষের সেবা দেন তারপরে তাদের কথা আমি চিন্তা করব। কারণ শর্ত দিয়ে আমি কাজে আনব না।
যদি বাংলাদেসে তেমন দুর্দিন আসে, প্রয়োজনে বাইরে থেকে ডাক্তার নিয়ে এসে কাজ করব। এমন দুর্বল মানসিকতা যাদের তাদের আমার কিছু বলার নেই। রোগী কেন ফেরত যাবে? একজন রোগী ঘুরে ঘুরে চিকিৎসা পাবে না, কেন এমন হবে? কিন্তু একজন ডাক্তার তার দায়িত্ব থাকে। তাদের সুরক্ষার জন্য আমরা সব রকম চেষ্টা করে যাচ্ছি। তাহলে রোগী কেন ফেরত যাবে।
এর আগে করোনা মোকাবিলায় নিয়োজিত চিকিৎসক ও নার্সদের তালিকা তৈরি এবং জরুরি চিকিৎসা সেবায় যারা কাজ করছেন তাদেরকে বিশেষ প্রণোদনা দেওয়ার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী।