সাড়ে ২২ হাজার বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের উদ্যোগ

 

 

১ থেকে ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের পরীক্ষার মাধ্যমে নিবন্ধিত প্রায় ৮ লাখ প্রার্থীর মধ্য থেকে নিয়োগ দিতে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে এনটিআরসিএ

করোনার কারণে ছয় মাস বন্ধ থাকার পর বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের শূন্যপদ পূরণের উদ্যোগ নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সারাদেশে শূন্যপদের বিপরীতে চলতি মাসেই প্রায় সাড়ে ২২ হাজার সহকারী শিক্ষকের নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। আগামী নভেম্বরের মধ্যে এ নিয়োগপ্রক্রিয়া শেষ করতে চায় বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দেশের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের শূন্যপদের বিপরীতে তালিকা তৈরি করে এনটিআরসিএ। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে এ তালিকা সংগ্রহ করে সংস্থাটি। সে লক্ষ্যে গত ২৬ আগস্ট দেশের সব জেলার শিক্ষা কর্মকর্তার সঙ্গে এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যানের সভা হয়। সভায় উপজেলা ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের শূন্যপদের প্রাথমিক তালিকা সরেজমিন যাচাই করতে নির্দেশ দেওয়া হয়। সম্প্রতি সেই তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। সেখানে সারাদেশে সাড়ে ২২ হাজার সহকারী শিক্ষকদের পদ শূন্য রয়েছে। করোনার কারণে দেরিতে হলেও সেই পদ পূরণ করতে চায় এনটিআরসিএ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) আকরাম হোসেন বলেন, ‘আমি এখানে যোগদানের আগেই এ কাজ শুরু হয়েছিল। আমি শুধু তালিকাটি চূড়ান্ত করেছি। সারাদেশ থেকে প্রায় সাড়ে ২২ হাজার শূন?্যপদের তালিকা পেয়েছি।’ এগুলো যাচাই-বাছাইয়ের কাজ শেষ করে চলতি মাসেই নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে জানান তিনি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মেধাতালিকার ভিত্তিতে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশ করবে এনটিআরসিএ। তার আগে চাহিদা পাওয়া এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শূন্যপদের খসড়া তালিকা চূড়ান্ত করা হবে। তালিকা অনুযায়ী শূন্যপদের অনুমোদন আছে কি না, নারী কোটায় পুরুষ শিক্ষকের চাহিদা অথবা নারী কোটা পূরণ, চাহিদার চেয়ে বেশি শূন্যপদ দেখানো হয়েছে কি না, এসব বিষয় যাচাই করে তালিকা চূড়ান্ত করা হবে। এজন্য মাঠপর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তারা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরেজমিন গিয়ে যাচাই করবেন। তালিকা শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন দেওয়ার পর ১ থেকে ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের পরীক্ষার মাধ?্যমে নিবন্ধিত প্রায় ৮ লাখ প্রার্থীর মধ্যে থেকে নিয়োগ দিতে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে এনটিআরসিএ।