মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সাত দেশ থেকে সাত গান

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তাঁকে নিয়ে বিশ্বের সাতটি দেশ থেকে সাতটি গান তৈরি করছেন কলকাতার বাচিকশিল্পী ও গীতিকার শুভদীপ চক্রবর্তী এবং গায়ক ও সঙ্গীত পরিচালক চিরন্তন ব্যানার্জী। এই সাতটি গানের ভাবনা ও রচনা শুভদীপের। চিরন্তনের সুরে, সংগীতায়োজনে ও সঙ্গীত পরিচালনায় এই গানগুলিতে কণ্ঠ দিয়েছেন কলকাতা, বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্বনামধন্য শিল্পীরা। শুভদীপ চক্রবর্তী শনিবার টেলিফোনে কলকাতা থেকে কালের কণ্ঠকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, জাতির পিতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর প্রতি বাংলাদেশিদের আবেগ, শ্রদ্ধা থাকবে এটিই স্বাভাবিক। বঙ্গবন্ধু ভারতবাসীর কাছেও অত্যন্ত শ্রদ্ধার পাত্র। বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে একজন ভারতীয় হিসেবে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তাঁকে নিয়ে তিনি গান তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন।

শুভদীপ জানান, তাদের উদ্যোগে একদিকে যেমন প্রতিটি গানের শিরোনাম ও বিষয়গত ভাবনায় বঙ্গবন্ধুর জীবনের মহিমাকে বিভিন্ন আঙ্গিকে তুলে ধরা হয়েছে তেমনি সুরের বৈচিত্রের দিক থেকে সাতটি গানের মধ্যে দিয়ে সাতটি সংগীতের ধারাকে তুলে ধরা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া থেকে শিল্পী দে ও কানাডা থেকে ফারহানা শান্তার সঙ্গে গান গেয়েছেন কলকাতার প্রখ্যাত শিল্পী রাঘব চট্ট্যোপাধ্যায় ও রূপঙ্কর বাগচী। জাপান থেকে গোলাম মাসুম জিকো পরিচালিত নিহন বাংলার প্রযোজনায় ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে সাইফুর ওসমানীর উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর গানে একসঙ্গে গলা মিলিয়েছেন কলকাতার জয়তী চক্রবর্তী, ইমন চক্রবর্তী, বাংলাদেশের আলিফ আলাউদ্দিন, মনি জামান, সৈয়দ আবুল হাদি, সুস্মিতা সেন, আলিফ লায়লা, যুক্তরাষ্ট্রের মার্ভিন অধিকারী রূপম, তনিমা হাদিসহ বিশিষ্ট শিল্পীরা।

এই প্রথম বাংলাদেশ থেকে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গান গাইছেন বিশিষ্ট রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী শামা রহমান। এ ছাড়া সিঙ্গাপুর ও কলকাতা থেকেও তৈরি হচ্ছে দুটি বিশেষ গান। সিঙ্গাপুর টেগোর সোসাইটি-র উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে একটি বিশেষ আলেখ্য তুমি আমাদের পিতা। এই কাজে অংশ নিতে পেরে প্রত্যেক শিল্পী আবেগে আপ্লুত হয়েছেন। কারণ প্রতিটি গানের বিষয় যেখানে বঙ্গবন্ধু স্বয়ং। শুভদীপ ও চিরন্তন দুজনেই পিতৃপুরুষ সূত্রে বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্ত। তাই বঙ্গবন্ধুকে ঘিরে তাদের ভালো লাগা মানচিত্রের সীমানাকে অতিক্রম করে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শিল্পীদের একত্রিত করেছে।

তাঁরা দুজনেই মনে করেন যে, বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশের মানুষের কাছেই নন, সারা বিশ্বের বাঙালিদের কাছে একজন কীর্তিমান পুরুষ যার জন্য আমরা সবাই গর্বিত। বঙ্গবন্ধুর জন্যই বাংলাভাষার তথা বাংলা সংস্কৃতির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি। বঙ্গবন্ধুর জন্যই পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশের উৎপত্তি। ত্রিশ লাখ বাঙালির রক্তে রঞ্জিত অর্জিত স্বাধীনতার অধিনায়ক বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে গানের মাধ্যমে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্যই এই বিশেষ প্রয়াস কলকাতার শিল্পী যুগলের।

উল্লেখ্য, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কলকাতা থেকে প্রথম আবৃত্তির অ্যালবাম ‘মুক্তিযুদ্ধের কবিতা ও জাগ্রত জাতির পিতা’ শুভদীপের কণ্ঠে প্রকাশিত হয়েছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক প্রকল্পে গান গেয়েছেন চিরন্তন। এই দুই শিল্পীর লক্ষ্য আগামীদিনে এই দুই শিল্পীর পরিকল্পনা সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক মেলবন্ধন আরো দৃঢ় করা।