সিটি নির্বাচনে নবীন প্রার্থীদের নিয়ে ঝুঁকি নিচ্ছেন তারেক, শঙ্কায় নেতৃবৃন্দ!

 

নিউজ ডেস্ক : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে তাবিথ আউয়ালকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। এছাড়া দক্ষিণে চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন ইশরাক হোসেন। জানা গেছে, লন্ডনে অবস্থান করা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পছন্দ অনুযায়ী এই দুজনকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

তবে তুলনামূলকভাবে তরুণ ও মাঠের রাজনীতিতে নবীন প্রার্থীদের মনোনয়ন দিয়ে বিএনপি বড় ঝুঁকি নিচ্ছে, এমনকি দুজন ঢাকার ওয়ার্ড-কেন্দ্রিক ও থানা-কেন্দ্রিক রাজনীতিতে পরিচিত মুখ নব বলেও দলটির অভ্যন্তরে নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু দলীয় প্রধান তাবিথ ও ইশরাককে মনোনয়ন দেয়ায় পরাজয়ের শঙ্কার বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে ভয় পাচ্ছেন বিএনপির নীতি-নির্ধারকরা।

দলটির গোপন সূত্রে জানা গেছে, সিনিয়র নেতা মির্জা আব্বাস, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব উন-নবী-খান সোহেলের মতো পরীক্ষিত ও পোড় খাওয়া নেতাদের বাইপাস করে তাবিথ ও ইশরাককে মনোনয়ন দেয়ায় দলের সিনিয়র নেতাদের একাংশ সন্তুষ্ট হতে পারেননি। বিশেষ করে দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র, মওদুদ আহমেদের মতো দলটির প্রবীণ নেতারা হঠাৎ করে জুনিয়র নেতাদের এতো বড় নির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ায় ভেতরে ভেতরে নাখোশ হয়েছেন। বয়সে তরুণ, অভিজ্ঞতায় একেবারে আনকোরা নেতাদের মনোনয়ন দেয়াটাকে রাজনৈতিক অদূরদর্শিতাও বলে অভিহিত করছেন তারা। তবে বিগত সিটি গাজীপুর, খুলনা, বরিশাল ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনে সিনিয়র নেতাদের মনোনয়ন দিয়ে বিপুল ভোটে পরাজিত হওয়ায় তারেক রহমান তরুণ তুর্কিদের নিয়ে বিএনপিকে নতুন করে সাজাতে চান বলেও একটি গুঞ্জন চাউর হচ্ছে বিএনপির রাজনীতিতে। যার ফলে মির্জা ফখরুল, আব্বাস ও মওদুদদের মতো সিনিয়র নেতাদের দিন কি বিএনপিতে শেষ হয়ে এল, সেটি নিয়েও দলের অভ্যন্তরে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। প্রবীণদের ব্যর্থতায় বিএনপিতে নবীনরা সুযোগ পাচ্ছেন, এমন আলোচনাও শোনা যাচ্ছে বিএনপি নেতাদের মুখে।

এদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, তারেক রহমান তরুণ-নির্ভর বিএনপি গড়তেই ঢাকার দুই সিটিতে নবীন নেতাদের মনোনয়ন দিয়েছেন অথবা সম্ভাব্য পরাজয় আঁচ করতে পেরেই তরুণদের মাঠে নামিয়েছেন তিনি। কারণ জ্যেষ্ঠ নেতারা যদি সিটি নির্বাচনে বিপুল ভোটে পরাজিত হন তবে দলের রাজনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে, এমন ভাবনাও ভাবতে হচ্ছে বিএনপির হাইকমান্ডকে। সেই অর্থে বিএনপিকে নিয়ে তারেক এক ধরণের জুয়া খেলছেন বলেও মনে করছেন বিশ্লেষকরা।