ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয় : হক্কানী আলেম সমাজ

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয় বলে জানিয়েছেন হক্কানী আলেম সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ। তার বলেছেন, ভাস্কর্যকে মূর্তি বলে আখ্যায়িত করে মানুষের মধ্যে উস্কানিমূলক বক্তব্য ছডড়িয়ে দেয়া ঠিক নয়। কারণ, ভাস্কর্য মানুষের একটি প্রাচীন শিল্প রূপ এবং মূর্তি পূজার জন্য তৈরি করা হয়।

জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে হাক্কানী আলেম মো. ইলিয়াস ইব্রাহিম বিক্রমপুরী বলেন, ধর্মীয় কর্মকাণ্ড ছাড়াও প্রতিটি জাতির নিজস্ব সংস্কৃতি আছে এবং এমনকি আরবদেরও নিজস্ব সংস্কৃতি আছে। একইভাবে, বাঙ্গালি জাতি হিসেবে আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি এবং ভাস্কর্য শিল্প, সংস্কৃতি, ইতিহাস এবং ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে নির্মিত হচ্ছে।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, বছর পর বছর ধরে বাংলাদেশে জিয়াউর রহমানসহ বহু ভাস্কর্য রয়েছে, কিন্তু ভাস্কর্যগুলো অপসারণ বা ভেঙ্গে ফেলার জন্য কেউ কথা বলেনি। এখন, কিছু মানুষ হঠাৎ করে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে সমাজে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চায়।

যারা এখন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে ফতোয়া (ইসলামিক হুকুম) দিচ্ছেন তারা একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের নাস্তিক ও কাফের বলে অভিহিত করেছিল।

বিবৃতিতে আরও বরা হয়, এই ব্যক্তিরা একবার টেলিভিশন দেখা এবং ইংরেজি শেখার বিরুদ্ধেও ফতোয়া দিয়েছিলেন কিন্তু পরে এগুলো ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে বৈধ হিসাবে প্রমাণিত হয়েছিল।

হাক্কানী আলেম সম্প্রদায় জনগণের ধর্মীয় অনুভূতি ব্যবহার করে যারা দেশে অশান্তি সৃষ্টি করতে চায় তাদের উস্কানিমূলক বক্তৃতা দ্বারা জনগণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে মো. ইমরান হোসেন, মো. হাফিজুল হক, মো. লোকমান হোসেন সাইফী ও সোলায়মান বিন কাশেমী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।