করোনা চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এককাট্টা ঢাকা-মাসকাট

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, সভায় বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন। অন্যদিকে ওমানের পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির উপসচিব শেখ খলিফা আলহার্থি।

করোনা মহামারিতে চলমান চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ ও ওমান। একইসঙ্গে রোহিঙ্গা ইস্যুতে ঢাকাকে পূর্ণ সমর্থন দেবে মাসকাট।

মঙ্গলবার এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ঢাকা ও মাসকাটের মধ্যে পররাষ্ট্র বিষয়ক পরামর্শক সভায় (এফওসি) করোনা মোকাবিলায় একমত হয় উভয়পক্ষ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, সভায় বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন। অন্যদিকে ওমানের পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির উপসচিব শেখ খলিফা আলহার্থি।

বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন ইস্যুতে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করা হয়। চলমান রাজনৈতিক সম্পর্ক, অর্থনৈতিক সহযোগিতা, সক্ষমতা বৃদ্ধি ও বাংলাদেশি কর্মীদের প্রশিক্ষণ, কনস্যুলার ইস্যু এবং দুই দেশের জনগণের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধির বিষয়গুলো আলোচনায় স্থান পায়।

উভয়পক্ষ সমুদ্র ইস্যু, কূটনৈতিক অ্যাকাডেমি, থিঙ্ক-ট্যাঙ্কস ও স্টার্ট-আপস, যৌথ ব্যবসা কাউন্সিল গঠন, বাংলাদেশের হাই টেক পার্ক ও ইপিজেডে বিনিয়োগের সম্ভাবনার বিষয়ে অংশীদারত্ব প্রসারে বিশাল সম্ভাবনা কাজে লাগানোর ওপর জোর দেয়। এ ছাড়া আগামী দিনে স্বাস্থ্য ও খাদ্য সুরক্ষার বিষয়গুলো আলোচনায় স্থান পায়।

উভয় পক্ষ আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক ইস্যুতে মতবিনিময়ের পাশাপাশি বহুপাক্ষিক ফোরামে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা বাড়ানোর ওপরও জোর দিয়েছে।

পররাষ্ট্রসচিব করোনা মহামারির মধ্যে ওমানে অবস্থানরত বাংলাদেশিকর্মীদের যত্ন নেয়ায় দেশটির সুলতানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ওমানের উপসচিব দেশটিতে অবস্থানরত বাংলাদেশিকর্মীদের দুই দেশের অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখায় তাদের প্রশংসা করেন। এ সময় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন আলহার্থি।

পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেনের নেতৃত্বে ১২ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ এবং ওমানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতসহ প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।