করোনাকালেও উড়াল রেলপথ নির্মাণে উড়ন্ত গতি

গভীর রাতেও বসানো হচ্ছে অবকাঠামো; ঝড়-বৃষ্টির মধ্যে নৌপথে আনা হয়েছে ট্রেন। বৈশ্বিক করোনা মহামারির কারণে যেখানে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের গতি ধরে রাখা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে সেখানে বাংলাদেশের প্রথম উড়াল মেট্রোরেল নির্মাণ প্রকল্পে এসেছে উড়ন্ত গতি।

বাংলাদেশের প্রথম উড়াল মেট্রোরেল নির্মাণ হচ্ছে রাজধানী ঢাকার উত্তরা তৃতীয় পর্ব থেকে মতিঝিলে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনের অংশ পর্যন্ত। এটি কমলাপুর পর্যন্ত বর্ধিত করার জন্য ভূমি অধিগ্রহণ ও নকশা প্রণয়নের কাজ শুরু হয়েছে। গত ৩১ মে পর্যন্ত এ প্রকল্পের নির্মাণকাজের সার্বিক গড় অগ্রগতি ৬৪ দশমিক ৯১ শতাংশ। প্রকল্পের অগ্রগতি প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, এখন পর্যন্ত প্রকল্পে নিযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৬৮ জন। এর মধ্যে গত এপ্রিলে সবচেয়ে বেশি ২১৯ জন আক্রান্ত হন। মে মাসে আক্রান্ত হন সাতজন। আক্রান্তের সংখ্যা কমলেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে। সবরকম সতর্কতা অবলম্বন করেই প্রকল্পের কাজ চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা ডিএমটিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক।

প্রকল্পের প্রথম পর্যায় উত্তরা তৃতীয় পর্ব থেকে আগারগাঁও অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৮৫.৭৪ শতাংশ। দ্বিতীয় পর্যায় আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৬২ দশমিক ৫০ শতাংশ। ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল সিস্টেম এবং রোলিং স্টক (রেলকোচ) ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ কাজের সমন্বিত অগ্রগতি ৫৬ দশমিক ৪ শতাংশ।
আটটি অংশে ভাগ করে প্রকল্পের কাজ চলছে। এর মধ্যে প্যাকেজ-১ (ডিপো এলাকার ভূমি উন্নয়ন অংশের বাস্তব কাজ ২০১৬ সালের ৮ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে নির্ধারিত সময়ের নয় মাস আগে ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি শেষ হয়েছে। এতে সরকারের ৭০ কোটি ৫৮ লাখ টাকা সাশ্রয় হয়েছে। এ অংশের ১০০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

প্যাকেজ-২ এর অধীনে প্রকল্পের দিয়াবাড়িতে ডিপো এলাকার পূর্ত কাজ ২০১৭ সালের  ১৩ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে। ডিপোর ভেতরে নির্মাণের জন্য নির্ধারিত মোট ৫২টি অবকাঠামোর মধ্যে ১৪টির নির্মাণকাজ পরিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। এ অংশে পূর্ত কাজের অগ্রগতি হয়েছে ৯৫ শতাংশ। সকল স্থাপনার চারপাশে একই ধরনের সিরামিক টাইলস্ দিয়ে স্থাপত্যশৈলীর কাজ চলছে। এ কাজ আরও ১০ শতাংশ বাকি রয়েছে। কারিগরি ও বৈদ্যুতিক কাজের অগ্রগতি হয়েছে ৭৭ শতাংশ।

প্যাকেজ- ৩ ও ৪ এর উত্তরা উত্তর থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট ও নয়টি স্টেশন নির্মাণের কাজ ২০১৭ সালের ১ আগস্ট শুরু হয়। পরিষেবা স্থানান্তর, চেকবোরিং, টেস্ট পাইল, মূল পাইল, পাইল ক্যাপ, আই-গার্ডার, প্ৰিকাস্ট সেগমেন্ট কাস্টিং, পিয়ার হেড, ১১.৭৩ কিলোমিটারের ভায়াডাক্ট ও পাঁচটি বড় স্প্যান বসানো হয়েছে। সকল স্টেশনের উপ-অবকাঠামো নির্মাণ এবং ১৪ হাজার ৭৪৮টি প্যারাপেট ওয়ালের মধ্যে সব প্যারাপেট ওয়াল ভায়াডাক্টের ওপর স্থাপন করা হয়েছে।

উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার, উত্তরা দক্ষিণ ও পল্লবী স্টেশনের ছাদ নির্মাণ শেষ হয়েছে। বর্তমানে মিরপুর- ১১, মিরপুর- ১০, কাজীপাড়া ও শেওড়াপাড়া এবং আগারগাঁও রেলস্টেশনের কনকোর্স ছাদ নির্মাণের কাজ চলছে। উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার, উত্তরা দক্ষিণ ও পল্লবী স্টেশনের প্ল্যাটফর্মের নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। মিরপুর- ১১, কাজীপাড়া ও শেওড়াপাড়া স্টেশনের প্ল্যাটফর্মের নির্মাণকাজ চলছে। উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার, উত্তরা দক্ষিণ ও পল্লবী স্টেশনের নির্মাণ কাজ চলছে। সবমিলে এ অংশের সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৮১ শতাংশ।
প্যাকেজ-৫ এর অধীন আগারগাঁও থেকে কারওয়ান বাজার পর্যন্ত ৩.১৯৫ কিলোমিটার অংশে ভায়াডাক্ট ও তিনটি স্টেশনের নির্মাণকাজ ২০১৮ সালের ১ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে। বর্তমানে এ অংশে পরিষেবা স্থানান্তর, চেকবোরিং, ট্রায়াল ট্রেঞ্চ, টেস্ট পাইল, পিয়ার কলাম ও পিয়ার হেড নির্মাণ শেষ হয়েছে। বিজয় সরণি, ফার্মগেট ও কারওয়ান বাজারে মেট্রোরেল স্টেশনের নির্মাণকাজ চলছে। এ অংশে প্রদর্শনী ও তথ্যকেন্দ্র নির্মাণে পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৯৮ শতাংশ। ৩ দশমিক ১৯৫ কিলোমিটার ভায়াডাক্টের মধ্যে ১ দশমিক ৪৫০ কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়েছে। এ প্যাকেজের সার্বিক বাস্তব অগ্রগতি ৬৬.৯৪ শতাংশ।

প্যাকেজ-৬ এর অধীন কারওয়ান বাজার থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ৪ দশমিক ৯২২ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট ও চারটি স্টেশনের নির্মাণকাজ চলছে। এ অংশের কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালের ১ আগস্ট। বর্তমানে এ অংশে পরিষেবা স্থানান্তর, চেকবোরিং, ট্রায়াল, ট্রেঞ্চ, টেস্ট পাইল, পিয়ার হেড ও পিয়ার কলাম স্থাপনসহ বিভিন্ন কাজ শেষ হয়েছে। শাহবাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ সচিবালয় ও মতিঝিলে মেট্রোরেল স্টেশনের নির্মাণকাজ চলছে।
প্যাকেজ-৭ এর অধীন ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড মেকানিক্যাল সিস্টেম সরবরাহ ও নির্মাণকাজ ২০১৮ সালের ১১ জুলাই শুরু হয়। উত্তরা ডিপোয় পূর্ত কাজ শেষ করে বিদ্যুতায়নের কাজও শেষ হয়েছে। মতিঝিল রিসিভিং সাব-স্টেশন ভবনের নির্মাণকাজ চলছে। এ প্যাকেজের অধীন বিভিন্ন কাজের সার্বিক বাস্তব অগ্রগতি ৭০ দশমিক ২০ শতাংশ।

প্যাকেজ-৮ এর অধীন রোলিং স্টক (রেল কোচ) ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহের কাজ ২০১৭ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর শুরু হয়। প্রথম মেট্রো ট্রেন সেট গত ২৩ এপ্রিল ঢাকার উত্তরার ডিপোতে পৌঁছায়। দ্বিতীয় মেট্রো ট্রেন সেট জাপানের কোবে সমুদ্র বন্দর থেকে ঢাকার উত্তরার ডিপোয় আনা হয় গত ২ জুন। তৃতীয় ও চতুর্থ মেট্রো ট্রেন সেটের জাহাজীকরণের সম্ভাব্য তারিখ আগামী ১১ জুন। সবমিলে এ প্যাকেজের অধীন বিভিন্ন কাজের বাস্তব অগ্রগতি ৪৪ দশমিক ৯১ শতাংশ।