বাংলাদেশকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা দিচ্ছে জার্মানি

বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে বাংলাদেশকে কারিগরি ও আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে জার্মানি। বাংলাদেশি মুদ্রায় আর্থিক সহায়তার পরিমাণ প্রায় তিন হাজার ৪৬৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

রোববার (২০ জুন) অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে ফেডারেল রিপাবলিক জার্মানি সরকারের এ সংক্রান্ত আর্থিক ও প্রযুক্তিগত একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

ইআরডি সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূত পিটার ফারেনহোল্টজ নিজ নিজ পক্ষে সই করেন। এ সময় ইআরডি ও জার্মান সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জার্মানি বিভিন্ন খাতে উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য বাংলাদেশকে এ অর্থ দিচ্ছে। নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহারে দক্ষতা উন্নয়ন, টেকসই নগর উন্নয়ন, সুশাসন প্রতিষ্ঠা, বাস্তুচ্যুতি এবং অভিবাসন, প্রশিক্ষণ এবং টেকসই প্রবৃদ্ধি এবং জীববৈচিত্র্য সুরক্ষায় এ অর্থ ব্যয় করা হবে। ১৯৭২ সালের পর থেকে বাংলাদেশের উন্নয়নে আর্থিক ও প্রযুক্তিগত সহায়তা অব্যাহত রেখেছে জার্মানি। গত ৪৯ বছরে বাংলাদেশকে সাহায্যের পরিমাণ প্রায় তিন বিলিয়ন ইউরো।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জার্মান রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের সাফল্যের ধারাবাহিকতায় সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে পেরে আমরা আনন্দিত। গত কয়েক দশকে বাংলাদেশ অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। প্রতিটি ক্ষেত্রে বাংলাদেশ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে চলেছে। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে জার্মানি।