জাতিসংঘে শেখ হাসিনার ভাষণ ২৪ সেপ্টেম্বর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের ৭৬তম সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন ২৪ সেপ্টেম্বর বিকালে। এটি হবে তাঁর জাতিসংঘে ১৮তম ভাষণ। এ বিশ্বসংস্থার ইতিহাসে আর কোনো দেশের প্রেসিডেন্ট/প্রধানমন্ত্রীর এমন ভাগ্য হয়নি বলে জাতিসংঘ সচিবালয় উল্লেখ করেছে। সূত্র আরও জানিয়েছেন, জাতিসংঘ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন কার্যক্রমে অসাধারণ অবদানের জন্য শেখ হাসিনার মতো আর কেউই এত বেশি অ্যাওয়ার্ড লাভেও সক্ষম হননি। শেখ হাসিনার ঝুড়িতে নেতৃত্বে বিচক্ষণতায় মানুষের জীবনমানের উন্নয়নে সাফল্য প্রদর্শনের ২৭টির অধিক অ্যাওয়ার্ড রয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র বাংলাদেশ প্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন, সাধারণ অধিবেশনে ভাষণের পর নিউইয়র্কে কর্মরত সাংবাদিকদের নিয়ে প্রেস কনফারেন্সেও শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি মিলিত হবেন। প্রবাসীদের একটি সমাবেশেও ভার্চুয়ালি বক্তব্য দেবেন চতুর্থ মেয়াদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্বের নামও ঘোষণা করতে পারেন। সূত্র জানান, ২৫ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার ওয়াশিংটন ডিসির উদ্দেশে নিউইয়র্ক ত্যাগের কথা। সেখানে চিকিৎসার ফলোআপ ছাড়াও মার্কিন প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গে তাঁর ভার্চুয়ালি বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। উল্লেখ্য, করোনার কারণে একেবারেই নগণ্যসংখ্যক প্রতিনিধি দল নিয়ে বাংলাদেশের নেতা শেখ হাসিনা ১৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে জেএফকে এয়ারপোর্টে অবতরণ করবেন। বিশেষ ফ্লাইটে নিউইয়র্কে আসার পর স্বাস্থ্যবিধি শতভাগ মেনে সাধারণ অধিবেশনে অংশ নেবেন তিনি। সেখানে বিশ্বনেতারা সশরীরে উপস্থিত হয়ে নিজ নিজ বক্তব্য উপস্থাপনের সুযোগ পেলেও সদস্য দেশসমূহের ডেস্কেও বসবেন সীমিতসংখ্যক কূটনীতিক/পদস্থ কর্মকর্তারা। গণমাধ্যমকর্মীদের গতিবিধিও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নেওয়া হয়েছে। জাতিসংঘের টিভি ফুটেজ ও ওয়েবসাইট থেকে বিস্তারিত তথ্য জানতে হবে সাংবাদিকদের। জাতিসংঘ সচিবালয় এসব তথ্য জানায় বাংলাদেশ প্রতিদিনকে।